নির্দেশনা

ইহা কো-এনজাইম কিউ১০ এর ঘাটতি এবং মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিসঅর্ডারে নির্দেশিত। এ ছাড়াও এটা অন্যান্য ঔষধের সাথে কনজেসটিভ হার্ট ফেলিওর, মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্কসন, উচ্চ রক্তচাপ (হাইপারটেনশন), মাইগ্রেন হেডেক ও পারকিনসন ডিজিজ প্রতিরোধে এবং রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা, পুরুষের ইনফার্টিলিটি ও মাস্কুলার ডিসট্রোফি উন্নতি করতে ব্যবহৃত হয়।

ফার্মাকোলজি

কো-এনজাইম কিউ১০ একটি ভিটামিন সদৃশ উপাদান যা সারা শরীরে বিশেষ করে হৃৎপিন্ড, যকৃত, বৃক্ক, অগ্নাশয় এ পাওয়া যায়। এটি শরীরের অনেক অঙ্গ ও রাসায়নিক বিক্রিয়ার সঠিক কার্যক্রমের জন্য প্রয়োজন। এটি কোষে শক্তি সরবরাহে সহায়তা করে। এটির এন্টিঅক্সিডেন্ট ক্ষমতা আছে।

মাত্রা ও সেবনবিধি

কো-এনজাইম কিউ১০ ঘাটতি এর জন্য: প্রতিদিন ১৫০ মিঃগ্রাঃ
সাম্প্রতিক মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিসঅর্ডার এর জন্য: প্রতিদিন ১৫০-১৬০ মিঃগ্রাঃ বা দৈনিক ২ মিঃগ্রাঃ/কেজি
কনজেসটিভ হার্ট ফেলিওর এর জন্য: প্রতিদিন ১০০ মিঃগ্রাঃ ২ বা ৩ টি বিভক্ত মাত্রায়
মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্কসন এর জন্য: প্রতিদিন ১২০ মিঃগ্রাঃ ২ টি বিভক্ত মাত্রায়
হাইপারটেনশন এর জন্য: প্রতিদিন ১২০-২০০ মিঃগ্রাঃ ২ টি বিভক্ত মাত্রায়
আইসোলেটেড সিস্টোলিক হাইপারটেনশন এর জন্য: ৬০ মিঃগ্রাঃ দিনে ২ বার
মাইগ্রেন হেডেক এর জন্য: প্রতিদিন ১০০ মিঃগ্রাঃ ৩ টি বিভক্ত মাত্রায়
পারকিনসন ডিজিজ এর জন্য: প্রতিদিন ৩০০ মিঃগ্রাঃ, ৬০০ মিঃগ্রাঃ, ১২০০ মিঃগ্রাঃ, ২৪০০ মিঃগ্রাঃ ৩ বা ৪ টি বিভক্ত মাত্রায়
পুরুষের ইনফার্টিলিটি এর জন্য: প্রতিদিন ২০০মিঃগ্রাঃ-৩০০ মিঃগ্রাঃ
মাস্কুলার ডিসট্রোফি এর জন্য: প্রতিদিন ১০০ মিঃগ্রাঃ

একবারে বেশী মাত্রার পরিবর্তে দৈনিক মোট মাত্রাকে কম পরিমানে দুই বা তিনটি বিভক্ত মাত্রায় করে সেবন করলে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কম হয়।

ঔষধের মিথষ্ক্রিয়া

এন্টিহাইপারটেনসিভ ড্রাগঃ রক্তচাপ কমিয়ে দিতে পারে।
এন্টিক্যান্সার ড্রাগঃ কিছু এন্টিক্যান্সার ড্রাগ এর কার্যকারিতা কমিয়ে দিতে পারে।
ওয়ারফারিনঃ ওয়ারফারিনের কার্যকারিতা কমিয়ে দিতে পারে।

প্রতিনির্দেশনা

যে সমস্ত রোগীর এই ঔষধ বা এই ঔষধের যে কোন উপাদানের প্রতি অতিসংবেদনশীলতা আছে তাদের ক্ষেত্রে কো-এনজাইম কিউ১০ প্রতিনির্দেশিত। যে সমস্ত রোগী আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে অপারেশনের কথা আছে তাদের ক্ষেত্রেও প্রতিনির্দেশিত।

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

কো-এনজাইম কিউ১০ বেশিরভাগ প্রাপ্ত বয়স্ক রোগীর জন্য নিরাপদ। এটা কিছু মৃদু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া বিশেষ করে পাকস্থলীর ব্যথা, ক্ষুধামন্দা, বমি বমি ভাব, বমি, ডায়রিয়া ঘটাতে পারে। এটা কিছু কিছু রোগীর এলার্জিজনিত ত্বকের ফুসকুরি তৈরি করতে পারে।

গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে

গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে কো-এনজাইম কিউ১০ ব্যাবহার করা উচিত নয়।

সতর্কতা

কো-এনজাইম কিউ১০ রক্তে সুগারের পরিমান কমিয়ে দেয় এজন্য যে সমস্ত রোগী ডায়াবেটিস বা হাইপোগ্লাইসেমিয়ায় ভুগছে তাদের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। কো-এনজাইম কিউ১০ রক্তের চাপ কমিয়ে দেয় এজন্য যে সমস্ত রোগীর রক্তচাপ কম আছে এবং যারা রক্তচাপ কমানোর ঔষধ সেবন করছে তাদের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

থেরাপিউটিক ক্লাস

Herbal and Nutraceuticals, Supplements & adjuvant therapy

সংরক্ষণ

আলো ও তাপ থেকে দূরে শুষ্ক স্থানে রাখুন। শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।
Hi, hope you are enjoying MedEx.
Please rate your experience