Unit Price: ৳ 600.00 (3's pack: ৳ 1,800.00)

নির্দেশনা

রক্সাডুস্ট্যাট কিডনি রোগীদের রক্তশুণ্যতায় নির্দেশিত।

বিবরণ

রক্সাডুস্ট্যাট একটি এইচআইএফ-পিএইচ ইনহিবিটর শ্রেণীর প্রথম মুখে খাওয়ার ট্যাবলেট যা এন্ডোজেনাস ইরাইথ্রোপয়েটিন উৎপাদন বৃদ্ধি করে ইরাইথ্রোপয়েসিস প্রক্রিয়াকে তরাণ্বিত করে। আয়রন রেগুলেশন উন্নত করে, লোহিত রক্ত কণিকা উৎপাদনের উপর প্রদাহজনিত ইপো- সাপ্রেসিভ ইফেক্টস কমাতে সাহায্য করে এবং সেই সাথে হেপসিডিন এর ডাউনরেগুলেশনের মাধ্যমে লোহিত রক্তকনিকা উৎপাদনে সাহায্য করে।

ফার্মাকোলজি

রক্সাডুস্ট্যাট একটি ওরালি বায়োঅ্যাভেইলেবল হাইপোক্সিয়া ইনডিউসিবল ফ্যাক্টর প্রোলাইল হাইড্রোক্সিলেজ ইনহিবিটর যা রক্তশূণ্যতা পূরণে সহায়ক। এইচআইএফ-পিএইচ এনজাইম স্বাভাবিক অক্সিজেন কন্ডিশনে এইচআইএফ ট্রান্সক্রিপশন ফ্যাক্টরকে ভেঙ্গে ফেলে। রক্সাডুস্ট্যাট এইচআইএফ-পিএইচ এর সাথে বাইন্ড করে এনজাইমটির কার্য্যক্ষমতা নষ্ট করে। ফলে এইচআইএফ ট্রান্সক্রিপশন ফ্যাক্টর এর কার্যকারীতা বৃদ্ধি পায়, যা ইরাইথ্রোপয়েটিন উৎপাদন বৃদ্ধি করে ফলে ইরাইথ্রোপয়েসিস প্রক্রিয়া তরাণ্বিত হয়। সেই সাথে এর ফলে পেপটাইড হরমোন হেপসাইডিন এর এক্সপ্রেশন কমে যায় যা আয়রন এর অ্যাভেইলেবলিটি বাড়ায় এবং রক্তে হিমোগোবিন এর মাত্রা বাড়ায়।

একাধিক সিকেডি রোগীর সাবপপুলেশনে দেখা গেছে, রক্সাডুস্ট্যাট ইনফ্লামেশনের উপস্থিতিতেও কোনো প্রকার আয়রন সাপ্লিমেন্ট ছাড়া ইরাইথ্রোপয়েসিস প্রক্রিয়াকে তরাণ্বিত করে, রক্তে লোহিত রক্ত কণিকার মাত্রা বৃদ্ধি করে এবং প্লাজমা ইরাইথ্রোপয়েটিন লেভেল স্বাভাবিক মাত্রাসীমার মাঝে বজায় রাখে।

রক্সাডুস্ট্যাট রিভারসিবলি আবদ্ধ হয় এবং হাইপোক্সিয়া-ইনডিউসিবল ফ্যাক্টর (এইচআইএফ) প্রোলিল হাইড্রোলেজ এনজাইমগুলিকে বাধা দেয়, এইচআইএফ-α ভেঙ্গে যাওয়া হ্রাস করে এবং এইচআইএফ ট্রান্সক্রিপশনাল ক্রিয়াকলাপ প্রচার করে। এই এইচআইএফ পথটি সক্রিয়করণের ফলে ইরিথ্রোপয়েসিসের সাথে জড়িত টার্গেট জিন উপর প্রভাব ফেলে যেমন ইপিও, ইপিও রিসেপ্টর, আয়রন শোষণ সহায়ক প্রোটিন, আয়রন পরিবহন এবং হেম সংশ্লেষণের উপর প্রভাব ফেলে। রক্সাডুস্ট্যাট প্রয়োগে ডোজ নির্ভরশীলভাবে হিমোগ্লোবিন মাত্রা বৃদ্ধি পায়, হিপসিডিনের মাত্রা উলেখযোগ্যভাবে হ্রাস পায় এবং সিকেডি-র রক্তাল্পতাজনিত রোগীদের (যারা ডায়ালাইসিস নির্ভর ছিল না) মধ্যে ইওপিও এর পরিমান বৃদ্ধি পায় । রক্সাডুস্ট্যাট ডায়ালাইসিস নির্ভর বা ডায়ালাইসিস-স্বতন্ত্র সিকেডি-র সাথে রক্তাল্পতাজনিত রোগীদের ডোজ নির্ভর পদ্ধতিতে সেরাম ট্রান্সফারিন, অন্ত্রের আয়রন শোষণ বৃদ্ধি করে এবং সঞ্চিত আয়রনের বিপাক হ্রাস করে। স্টাটিন বা অন্যান্য লিপিড-হ্রাসকারী এজেন্টগুলির ব্যবহার ছাড়াই রক্সাডুস্ট্যাট ব্যবহারের ফলে কোলেস্টেরলের মাত্রা উলেখযোগ্যভাবে হ্রাস পায়।

মাত্রা ও সেবনবিধি

রক্সাডুস্ট্যাট অবশ্যই সপ্তাহে তিন বার করে মুখে খাওয়ার জন্য নির্দেশিত, প্রতিদিন গ্রহণ করা যাবে না। রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ ১০ থেকে ১২ গ্রাম/ডিএল অর্জন এবং বজায় রাখার জন্য নিচের নির্দেশনা প্রযোজ্যঃ

যেসকল রোগী ইরাইথ্রোপয়েসিস স্টিমুলেটিং এজেন্ট গ্রহণ করে না: প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে সাধারণ প্রারম্ভিক মাত্রা হল ৫০ মিগ্রা যা সপ্তাহে তিন বার সেবন করতে হবে। নির্দেশিত প্রারম্ভিক ডোজ হল ৭০ মিগ্রা করে সপ্তহে তিন বার যাদের ওজন ১০০ কেজির কম এবং ১০০ মিগ্রা করে সপ্তহে তিন বার যাদের ওজন ১০০ কেজির বেশি।

যেসকল রোগী ইরাইথ্রোপয়েসিস স্টিমুলেটিং এজেন্ট গ্রহণ করে: প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে সাধারণ প্রারম্ভিক মাত্রা হবে ৭০ অথবা ১০০ মিগ্রা। যা সপ্তাহে তিন বার সেবন করতে হবে। অতঃপর রোগীর অবস্থা অনুযায়ী মাত্রা ঠিক করতে হবে।

মাত্রা ও প্রয়োগের সতর্কতা: যেসকল রোগী ইরাইথ্রোপয়েসিস স্টিমুলেটিং এজেন্ট থ্যারাপি থেকে পরিবর্তিত হচ্ছেন তাদের ক্ষেত্রে প্রারম্ভিক মাত্রাঃ পূর্বে গ্রহণরত ইরাইথ্রোপয়েসিস স্টিমুলেটিং এজেন্ট এর মাত্রার উপর ভিত্তি করে রক্সাডুস্ট্যাট এর মাত্রা নির্ণয় করতে হবে এবং সেই মাত্রায় রক্সাডুস্ট্যাট গ্রহণ করতে হবে।

মাত্রা সমন্বয়: যদি মাত্রা সমন্বয় এর প্রয়োজন হয় তবে নিচের "মাত্রা বৃদ্ধি-হ্রাস নিয়ম এবং মাত্রা বৃদ্ধি-হ্রাস সারণী" অনুযায়ী মাত্রা বৃদ্ধি বা হ্রাস করতে হবে। পরিবর্তনের পর পরিবর্তিত মাত্রা কমপক্ষে ৪ সপ্তাহ চালিয়ে যেতে হবে। রক্তে হিমোগ্লোবিনের ঘনমাত্রা যদি মাত্রা বৃদ্ধির ৪ সপ্তাহের মাঝে দ্রূত বৃদ্ধি পায় (>২ মিগ্রা/ডে.লি.), তবে মাত্রা হ্রাস করতে হবে অথবা রক্সাডুস্ট্যাট ব্যবহার বন্ধ করতে হবে।

মাত্রা বৃদ্ধি-হ্রাস সারণী: ২০ মিগ্রা- ৪০ মিগ্রা-৫০ মিগ্রা-৭০ মিগ্রা-১০০ মিগ্রা-১৫০ মিগ্রা-২০০ মিগ্রা-২৫০ মিগ্রা-৩০০ মিগ্রা-৪০০ মিগ্রা।

সেবনবিধি: রক্সাডুস্ট্যাট খাবারের আগে কিংবা পরে সেবন করতে হবে।

মিসড ডোজ: যদি পরবর্তী ডোজের ≥২৪ ঘন্টা বেশি সময় বাকি থাকে তাহলে তৎক্ষনাত মিসড ডোজটি গ্রহণ করুন। যদি ২৪ ঘন্টার কম সময় থাকে তাহলে মিসড ডোজটি বাদ দিন এবং পরবর্তী ডোজটি সময়মত গ্রহণ করুন। একই দিনে দুটি ডোজ কখনোই গ্রহণ করবেন না।

ঔষধের মিথষ্ক্রিয়া

অন্যান্য ওষুধের সাথে রক্সাডুস্ট্যাটের সাথে ড্রাগ-ড্রাগের মিথস্ক্রিয়া থাকতে পারে।

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

যেসকল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াসমূহ সাধারনত হয়ে থাকে তা হল উচ্চরক্তচাপ, কিডনীর রক্তপাত, পেটে অস্বস্তি, ডায়রিয়া, শরীর ফুলে যাওয়া, হাইপারক্যালেমিয়া, বমি-বমি ভাব।

গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে

গর্ভবতী মহিলাদের ক্ষেত্রে ব্যাবহার করা যাবেনা। স্তন্যদানকালে ব্যবহার করা যাবে না।

সতর্কতা

রক্সাডুস্ট্যাট ট্যাবলেট সাবধানে ব্যবহার করা উচিত। এটি কিছু থ্রম্বোটিক ভাস্কুলার ইভেন্ট শুরু করতে পারে বিশেষ করে TVE-ঝুঁকিপূর্ণ রোগীতের মধ্যে এবং যাদের মধ্যে স্থূলতা ও TVE-এর পূর্বের ইতিহাস রয়েছে। খিঁচুনির ইতিহাস সহ রোগীদের সতর্কতার সাথে রক্সাডুস্ট্যাট ব্যবহার করা উচিত। যদি কোন রোগীর যে কোন ধরনের সংক্রমণের গুরুতর লক্ষণ এবং উপসর্গ থাকে তবে রক্সাডুস্ট্যাট ব্যবহার করা উচিত নয়। রোগীর লিভারের ব্যাধি থাকলে রক্সাডুস্ট্যাট ব্যবহার করা উচিত নয়। গর্ভবতী মহিলাদের মধ্যে রক্সাডুস্ট্যাট শুরু করা উচিত নয়।

বিশেষ ক্ষেত্রে ব্যবহার

শিশু: শিশুদের ক্ষেত্রে রক্সাডুস্ট্যাট এর প্রয়োগের অনুমতি দেয়া হয়নি।

লিভার বা যকৃতের রোগে আক্রান্ত রোগী: মাঝারি বা গুরুতর লিভারের রোগে আক্রান্ত রোগীদের রক্সাডুস্ট্যাট ব্যবহারের জন্য সুপারিশ করা হয় নি।

মাত্রাধিক্যতা

ঔষধটি যখন ৫ মিগ্রা/কেজি মাত্রায় (৫১০ মিগ্রা)কোন সুস্থ প্রাপ্তবয়স্কে ব্যাবহার করার ফলে হার্টবিট বৃদ্ধি পেতে দেখা দিয়েছে। ঔষধটি অতিরিক্ত সেবনের ফলে রক্তে হিমোগ্লোবিনের ঘনমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে বেশি হয়। পরিমান মত ডোজের মাত্রা কমাতে হবে অথবা ব্যবহার বন্ধ করতে হবে।

থেরাপিউটিক ক্লাস

Drugs for Haemolytic Hypoplastic & Renal Anemia

সংরক্ষণ

৩০° সে. তাপমাত্রার নিচে, শুকনো স্থানে, আলো ও আর্দ্রতা থেকে দূরে রাখুন। সকল ওষুধ শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।